চীন সীমান্তে পরিস্থিতি গুরুতর: ভারতের সেনাপ্রধান

 প্রকাশ: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১১:৩০ অপরাহ্ন   |   আন্তর্জাতিক

চীন সীমান্তে পরিস্থিতি গুরুতর: ভারতের সেনাপ্রধান

ভারত-চীন প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি বা লাইন অব কন্ট্রোল) বরাবর সীমান্ত পরিস্থিতি অত্যন্ত ভয়ঙ্কর ও সংবেদনশীল বলে জানিয়েছেন ভারতের সেনাপ্রধান মনোজ মুকুন্দ নরভনে। দুই দিনের ‘লে’ সফরকালে শুক্রবার সংবাদসংস্থা এএনআই-কে দেওয়া এক সাক্ষাতকারে এই মন্তব্য করেন নরভনে।

বৃহস্পতিবার দুই দিনের সফরে ‘লে’ পৌঁছন সেনাপ্রধান। সেখানে সীমান্ত পরিদর্শনের পাশাপাশি সেনা সদস্য, কর্মকর্তাদের সাথেও কথা বলেন তিনি।

এব্যাপারে সেনা প্রধান বলেন, ‘গতকাল লে পৌঁছনোর পর আমি বিভিন্ন জায়গায় ঘুরেছি, প্রতি জায়গায় সেনার কর্মকর্তা ও জেসিও (জুনিয়র কমিশনড অফিসার)-দের সাথে কথা বলেছি। আমি পরিস্থিতির খোঁজ নিয়েছি এবং দেখেছি যে সেনা জওয়ানদের মনোবল যথেষ্ট তুঙ্গে এবং তারা যে কোন পরিস্থিতির মোকাবিলা করতে প্রস্তুত আছে। আমি মনে করি যে আমাদের জওয়ানরা সবচেয়ে শ্রেষ্ঠ এবং ওরা কেবল ভারতীয় সেনাবাহিনীই নয় গোটা দেশের নাম উজ্জ্বল করবে।’
এসময় সেনা প্রধান আরও বলেন ‘এই মুহূর্তে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা (এলএসি) বরাবর যে পরিস্থিতি বিরাজ করছে তা যথেষ্ট গম্ভীর ও সংবেদনশীল। কিন্তু আমরাও নিয়মিতভাবে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চালাচ্ছি ও পর্যবেক্ষণ করছি। আমাদের সুরক্ষার জন্য এলএসি বরাবর বেশ কিছু সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে এবং আমাদের ভরসা আছে যে এতে পরিস্থিতি ঠিকঠাক থাকবে।’

নরভনে আরও বলেন, ‘পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার জন্য সেনা ও কূটনৈতিক স্তরে দুই দেশের মধ্যে আলোচনা চলছে। আমাদের বিশ্বাস যে সীমান্ত বরাবর যে উত্তেজনাময় পরিস্থিতি বিরাজ করতে তা আলোচনার মাধ্যমেই মিটিয়ে ফেলা সম্ভব।’

গত ১৫ জুন পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপতক্যায় ভারত-চীন সংঘর্ষে এক কর্ণেলসহ ২০ জন ভারতীয় সেনা সদস্যদের মৃত্যুর পর সীমান্তে উত্তেজনা দেখা দেয়। ওই ঘটনার পর একাধিকবার কূটনৈতিক ও সেনার উচ্চপর্যায়ের বৈঠক হলেও কোন সমাধান সূত্র বের হয়নি। এরই মধ্যে গত ২৯-৩০ আগষ্টের মধ্যবর্তী সময়ে লাদাখের চুসুলের কাছে প্যাঙ্গং সো লেকের দক্ষিণে চীন আগ্রাসনের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ। যদিও সে চেষ্টা প্রতিহত করে ভারতীয় সেনা। 

আন্তর্জাতিক এর আরও খবর: