কিশোর কেন্দ্রে নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টে রুল

 প্রকাশ: ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৯:১০ অপরাহ্ন   |   আইন-আদালত-অপরাধ

কিশোর কেন্দ্রে নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হাইকোর্টে রুল


যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে (বালক) তিন কিশোর হত্যার ঘটনায় প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ কেন দেয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে হাইকোর্ট আজ সংশ্লিষ্টদের প্রতি রুল জারি করেছেন।


একইসঙ্গে তিনটি শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে বিদ্যমান অনিয়ম ও সমস্যা দূর করতে পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেয়া হবে না- রুলে তাও জানতে চাওয়া হয়েছে।


সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) বিচারপতি মো. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদার সমন্বয়ে গঠিত একটি হাইকোর্ট ডিভিশন বেঞ্চ এ আদেশ দেন।


স্বরাষ্ট্র সচিব, সমাজ কল্যাণ সচিব, সমাজ সেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, যশোরের জেলা প্রশাসক ( ডিসি), যশোর পুলিশ সুপার (এসপি), যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্র কর্তৃপক্ষকে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।


আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার সানজিদ সিদ্দিকী।


যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে (বালক) তিন কিশোর হত্যার ঘটনায় প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে রিটটি করা হয়। যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে (বালক) তিন কিশোর হত্যার ঘটনায় প্রত্যেক পরিবারকে ৫০ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দিতে ২০ আগষ্ট সংশ্লিষ্টদের প্রতি লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়। নিহত তিন কিশোরের পরিবারের পক্ষে সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সানজিদ সিদ্দিকী এ নোটিশ পাঠান।


নোটিশে সংবাদমাধ্যমে উঠে আসা দেশের তিনটি শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে বিদ্যমান অনিয়ম ও সমস্যা দূর করতে পদক্ষেপ নিতে বলা হয়। অনিয়ম ও সমস্যার মধ্যে রয়েছে, ধারণ ক্ষমতার অতিরিক্ত শিশু রাখা, খাদ্য সমস্যা ও নিরাপত্তার ঘাটতি এবং শিশুরা অনেক ক্ষেত্রে বুলিংয়ের শিকার হয়।


গত ১৩ আগস্ট যশোর শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে তিন কিশোরকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনস ঘটে। এ সময় আরো ১৫ কিশোর আহত হয়। নিহতরা হলেন- বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার ছোলিবপুর পূর্বপাড়ার নাইম হাসান, খুলনার দৌলতপুরের মহেশ্বরপাশা দক্ষিণপাড়ার পারভেজ হাসান ও বগুড়ার শেরপুরের মহিপুর গ্রামের রাসেল ওরফে সুজন।